বিনোদন

জংলিতে স্বস্তি সিয়ামের

মানিকগঞ্জে এম রাহিমের কোরবানির ঈদের ছবি ‘জংলি’র শুটিং করছেন সিয়াম আহমেদ। স্পটে গিয়ে অভিনেতার সঙ্গে কথা বলেছেন হৃদয় সাহা।  

জংলিতে স্বস্তি
দীর্ঘ বিরতির পর ‘জংলি’র মাধ্যমে বড় পর্দার ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হলেন সিয়াম। বিরতির কারণে অভিনেতার ভক্তরা বেশ চিন্তায় পড়ে গিয়েছিল।

তবে সিয়াম আছেন বেশ ফুরফুরে মেজাজে। বলেন, “এই সময়ে এসে বিশেষ পাণ্ডুলিপির খোঁজে ছিলাম আমি, যেটা অপরাপর ছবি থেকে ইউনিক হবে। ‘জংলি’তে সেটা খুঁজে পেয়েছি।”

শুধুই জংলি
ছবিটির ঘোষণার পরপরই সিয়াম ভক্তরা নড়েচড়ে বসেছে।

প্রিয় তারকাকে কোন রূপে, কেমন চরিত্রে দেখা যাবে—তা নিয়ে আগ্রহের কমতি নেই তাদের। সিয়ামও জানেন সেটা। গল্প বা চরিত্র নিয়ে কিছুই বলতে চাইলেন না, তবে চমক যে থাকবে সেটা বললেন, ‘এ ছবির চরিত্রের জন্য টানা প্রায় পাঁচ-ছয় মাস কোনো কাজ করিনি, জংলির চরিত্র নিয়েই ছিলাম। এখানে আমার লুকও ভিন্ন রকম।

আমি চাইনি এই লুকে অন্য কোনো কাজে আসি। ঈদে দর্শকের জন্য চমক হিসেবে রাখতে চাই।

দর্শনার্থীর ঢল
‘জংলি’র সেট ফেলা হয়েছে মানিকগঞ্জে। টানা ১০-১২ দিন শুটিং হবে সেখানে। এই দাবদাহে আউটডোর শুটিং খুবই কষ্টকর।

তবে উপভোগ করছেন সিয়াম, ‘আউটডোর শুটিং সব সময়ই আমাদের জন্য রোমাঞ্চকর। যদিও এবার দাবদাহে কষ্ট হচ্ছে বেশ, তবে আমরা স্পটে যথাযথ ব্যবস্থা রেখেছি। আমি অবাক হয়েছি শুটিং দেখতে আসা মানুষের ঢল দেখে। তীব্র গরমেও নারী-পুরুষ সবাই ঘণ্টার পর ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থেকে শুটিং দেখছে। ঢাকার বাইরে এলে এ দৃশ্যটা বরাবরই দেখা যায়, তাদের উচ্ছ্বাসও দেখার মতো।’

টানের বুবলী জংলির বুবলী
বছর দুয়েক আগে রায়হান রাফীর ওয়েব ছবি ‘টান’-এ প্রথমবার জুটি বেঁধেছিলেন সিয়াম ও বুবলী। বড় পর্দায় তাঁদের প্রথমবার দেখা যাবে ‘জংলি’তে। টানের বুবলী আর জংলির বুবলী কেমন? “দুজনেরই অভিজ্ঞতা খুব ভালো ছিল ‘টান’-এ, দর্শক পছন্দও করেছিল আমাদের। এরপর আরো বেশ কিছু ছবির প্রস্তাব আসে, কোনোটিই করা হয়নি। ‘জংলি’র পাণ্ডুলিপি আমার যেমন ভালো লেগেছে, তেমনি বুবলীরও। দুজনই বড় পর্দার জন্য এমন ছবিই চাইছিলাম। নায়িকা হিসেবে তো বটেই, অভিনেত্রী হিসেবেও বুবলী এখন অনেক দক্ষ ও পরিণত। ‘টান’-এর মতো এখানেও সে প্রশংসিত হবে”, বলেন সিয়াম।

শান থেকে আরো শাণিত
দুই বছর আগে রোজার ঈদে এম রাহিমের অভিষেক ছবি ‘শান’-এ অভিনয় করেছিলেন সিয়াম। তাঁর দ্বিতীয় ছবিতেও নায়ক তিনি। সিয়াম বলেন, “আসলে রাহিম ভাইয়ের সঙ্গে আমার পরিচয় অনেক পুরনো। আমার প্রথম ছবি ‘পোড়ামন ২’-তে তিনি সহযোগী পরিচালক ছিলেন, ‘দহন’ করতে গিয়ে হৃদ্যতা বাড়ে আমাদের। পরে যখন নিজেই পূর্ণ পরিচালক হলেন, তখন আমাকেই নায়ক নিলেন। ‘শান’ খুব পছন্দ করেছিল দর্শক। ‘জংলি’ করতে গিয়ে বুঝলাম, আরো শাণিত হয়েছেন রাহিম।”

ঈদমুখী ঢাকাই ছবি
রোজার ঈদে ১১টি ছবি মুক্তি পেয়েছিল। ছবিগুলো আশানুরূপ চলেনি। কোরবানির ঈদের দৌড়েও আছে সমসংখ্যক ছবি। এ নিয়ে চিন্তিত চলচ্চিত্রের অনেকেই। সিয়াম বলেন, “আমাদের দুর্ভাগ্য আমরা ঈদ ছাড়া সিনেমা মুক্তির উৎসব করতে পারিনি। আবার এটাও ঠিক, প্রযোজক তো পুঁজি ফেরত পাওয়ার নিশ্চয়তা চাইবেন, তাই ঈদকেই বেছে নেন। যাঁরা আগে ঘোষণা দিয়ে রাখেন, আর যাঁরা হুট করেই ঈদে চলে আসেন, দুটো তো পুরো আলাদা। গত বছর আমার ‘অর্ন্তজাল’ ঘোষণা দিয়েও অন্য সিনেমার সম্মানার্থে সরে এসেছিল। এবার যেমন আমাদের ‘জংলি’ বা ‘তুফান’ আগেই ঘোষণা দিয়ে রেখেছে। এ ক্ষেত্রে আমাদের অভিভাবক সংগঠনগুলোর অগ্রণী ভূমিকা পালন করা উচিত। তারা সিদ্ধান্ত নেবে কোন ছবি আসতে পারে, তাদের ওপর বিশ্বাস রাখতে হবে। চাইলেই তো সব ছবি মুক্তি দেওয়া ঠিক হবে না, রোজার ঈদ থেকে শিক্ষা নেওয়া উচিত। আমি মনে করি, ঈদে কয়টা ছবি মুক্তি পাবে সেটা নিয়ন্ত্রণ করা জরুরি।”

সিয়াম যেখানে আলাদা
সিয়ামের ক্যারিয়ার নিয়ে তাঁর ভক্তরা বেশ চিন্তিত। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তারা নানা প্রতিক্রিয়া দেখায়। এ প্রসঙ্গে সিয়াম বেশ অকপট, “দেখুন, বাণিজ্যিক ছবির অন্য নায়কদের তুলনায় আলাদা পথে চলার চেষ্টা করি আমি। নইলে ‘পোড়ামন ২’, ‘দহন’-এর পর তৃতীয় ছবি হিসেবে ‘ফাগুন হাওয়ায়’ বেছে নিতাম না। ‘মৃধা বনাম মৃধা’, ‘পাপ-পুণ্য’ করতাম না। ওটিটিও করেছি। আমার কাছে যখন যে গল্প বা চরিত্র ভালো লেগেছে সেটাই করেছি। আমার ধারণা দর্শকও পছন্দ করছে।”

আপাতত ওটিটি নয়
এখন ‘জংলি’ নিয়েই আছেন। এরপর নতুন কী করবেন তা এখনো ঠিক করেননি। সিয়াম বলেন, ‘এ ছবির ফলাফল চিন্তা করেই পরের ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হব। আপাতত ওটিটিতেও দেখা যাবে না আমাকে।’

Author


Discover more from MIssion 90 News

Subscribe to get the latest posts to your email.

সম্পর্কিত সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker