খেলাধুলা

বিশ্বকাপ ব্যর্থতার ব্যাখ্যা দিয়েছেন সাকিব-হাতুরাসিংহে

বিশ্বকাপের পর ফাঁকা পড়ে থাকে বিসিবি। অথচ কাল সাকিব আল হাসান, চন্দিকা হাতুরাসিংহে, মিনহাজুল আবেদীন, হাবিবুল বাশারদের সঙ্গে খালেদ মাহমুদ সুজনকেও বোর্ডে দেখা গেল। তবে কি বিশ্বকাপ ব্যর্থতার প্রতিবেদন দিতে এসেছিলেন তাঁরা? ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান জালাল ইউনুস জানিয়েছেন যে, তিনজনই নিজেদের প্রতিবেদন জমা দিয়েছেন ই-মেইলের মাধ্যমে। ‘সশরীরে লিখিত দেওয়ার কোনো ব্যাপার ছিল না।

তারা সবাই ই-মেইল করেছেন রিপোর্ট’, গতকাল সন্ধ্যায় ফোনে জানিয়েছেন জালাল ইউনুস। এই প্রতিবেদন বিসিবির পরবর্তী সভায় পেশ করা হবে।

এদিকে গতকাল হঠাৎই আড়মোড়া ভেঙেছে বিসিবি কার্যালয়। দুপুরে একাডেমি ভবনের সামনে ক্যামেরার লেন্স দেখতে পেয়ে হাত নাড়াচ্ছিল বছর তিনেকের একটি শিশু।

ক্রিকেটার বাবার জনপ্রিয়তার উত্তাপ এখনই বুঝতে শিখে গেছে অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান মিরাজের ছেলে। গতকাল অনুশীলন বা পেশাদার কোনো কাজে নয়, ছেলেকে নিয়ে নিজের কর্মস্থল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডে ঘুরতে এসেছিলেন মিরাজ।

গত রাতে মিরাজসহ ঢাকায় থাকা টেস্ট দলের সব ক্রিকেটার, সাপোর্ট স্টাফের সদস্যরা সিলেটে গেছেন। সেখানে ২৮ নভেম্বর নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ।

এ জন্য আজ শুরু অনুশীলন। এই টেস্ট শেষে ঢাকায় ৬ ডিসেম্বর দ্বিতীয় ম্যাচ। সেটি শেষ হওয়ার পরের দিনই ফিরতি সিরিজে নিউজিল্যান্ডের বিমানে ওঠার কথা বাংলাদেশ দলের। তাই ঘরের মাঠে সিরিজ শুরুর আগে সেই সফরেও চোখ রাখতে হচ্ছে টিম ম্যানেজমেন্টকে। নিউজিল্যান্ড সফরে তিনটি করে ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি সিরিজের দল বাছাই নিয়ে মিরপুরে গতকাল বৈঠক করেন হাতুরাসিংহে, মিনহাজুল এবং বাশার।

বৈঠক শেষে বাশার জানিয়েছেন, ‘টেস্ট সিরিজ শেষ হতেই তো দল নিউজিল্যান্ড চলে যাবে। তার আগে আমাদের টিম দিতে হবে। এগুলো নিয়েই কথা হয়েছে আমাদের।’ এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন আরো একজন। চোটের কারণে টেস্ট সিরিজের দলে না থাকা নিয়মিত অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। সে প্রসঙ্গে বাশার বললেন, ‘সাকিব এসেছিল মেডিক্যাল বিভাগের সঙ্গে কথা বলতে।’ বোর্ডের মেডিক্যাল বিভাগে খোঁজ নিলে বিসিবির চিকিৎসক দেবাশিষ চৌধুরী বললেন, ‘চোটের জায়গায় করা ব্যান্ডেজ পরিবর্তন করতে এসেছিল সাকিব।’ ৬ নভেম্বর বিশ্বকাপের ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাঁ তর্জনীতে চোট পাওয়া এই অলরাউন্ডারের বর্তমান অবস্থা জানান দেবাশিষ, ‘পরবর্তী অবস্থা বুঝতে গেলে তিন সপ্তাহ অপেক্ষা করতে হবে।’এরপর চোটের জায়গায় এক্স-রে করানো হবে। তখন সব ঠিকঠাক থাকলে শুরু হবে পুনর্বাসনপ্রক্রিয়া। তাতে কেমন সময় লাগতে পারে? এমন প্রশ্নে দেবাশিষ বলেন, ‘চূড়ান্ত কথা যেটা, তিন-চার সপ্তাহ পর অবস্থা কেমন হবে সেটার ওপর সব নির্ভর করবে।’ সে হিসাবে আরো এক মাস। অর্থাৎ সাকিবের নিউজিল্যান্ড সফরও শঙ্কায়।বাশার এ নিয়ে মন্তব্য করতে চাইলেন না, ‘আমাদের এখনো চূড়ান্ত কিছু জানায়নি (খেলতে পারবে কি না)। এরপর আরেকটা পরীক্ষা হবে, তখন জানা যাবে ওর অবস্থা কেমন।’ তবে ১১ নভেম্বর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে কাঁধের চোটে পড়া অলরাউন্ডার মাহমুদ উল্লাহ রিয়াদকে নিয়ে বললেন, ‘মনে হয় পারবে না। ওর সুযোগ কম।’

Author


Discover more from MIssion 90 News

Subscribe to get the latest posts to your email.

সম্পর্কিত সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এছাড়াও পরীক্ষা করুন
Close
Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker