বিনোদন

ব্লু ব্যাজ দিবে বলে হিরো আলমের আইডি হ্যাক

ফেইসবুকে ব্যক্তিগত আইডি ও পেইজ অথেনটিকেশনের জন্য যে “ব্লু ব্যাজ ভ্যারিফিকেশন” ব্যবস্থা চালু রয়েছে তার ফাঁদে ফেলে সমাজে প্রতিষ্ঠিত নানা শ্রেণি পেশার সেলিব্রেটিদের কাছে থেকে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে একাধিক চক্র। ভ্যারিফিকেশনের নামে ব্যক্তিগত তথ্য, আইডির পাসওয়ার্ড ও ইউজার নেইম নিয়ে পরবর্তিতে সেগুলো বদলে ফেলে। বিভিন্ন ভয় দেখিয়ে মোটা অংকের অর্থ  দাবি করে কোন উপায় না থাকায় প্রতারকদের কাছ থেকে চড়া মূল্য দিয়ে ফেরত নিতে হয় আইডি। সেখানেও থাকে টাকা বা আইডির কোনটাই ফেরত না পাওয়ার আসঙ্কা। অন্যথায় আইডিতে অপ্রীতিকর বিভিন্ন ছবি, ভিডিও বা আর্টিকেল পোস্ট করে। এতে প্রকৃত সত্বাধীকারীরা বিব্রত হওয়ার পাশাপাশি প্রতারক চক্রগুলো চড়া দমে এই আইডি বিক্রি করছে বেশ কিছু দেশের প্রতারকদের কাছে। প্রতারক চক্রগুলোর ফাঁদে পড়ে আর্থিক ক্ষতির পাশাপাশি সামাজিকভাবেও হেনস্তার শিকার হচ্ছেন সমাজে প্রতিষ্ঠিত জনপ্রিয় অনেক ব্যক্তি।

একই ভাবে সোস্যাল মিডিয়ায় তুমুল সক্রিয় দুই বাংলার জনপ্রিয় তারকা হিরো আলমের “Ashraful Hossen Alom” নামে ব্যক্তিগত আইডি হ্যাক করে নিয়েছে প্রতারক চক্রের এক সদস্য।

আরও পড়ুন: খুব সহজেই ফেসবুক প্রোফাইল বা পেজ ভ্যারিফাই করুন

হিরো আলম জানান, তিনি তার ফেসবুক পেজ ব্লু ব্যাজ ভ্যারিফিকেশনের জন্য ফেসবুক মাধ্যমে পাওয়া রাজা মিয়া নামে এক ব্যক্তির সাথে যোগাযোগ করেন। রাজা মিয়া হিরো আলমকে নির্দিষ্ট অর্থের বিনিময়ের ব্লু ব্যাজ দিবে বলেও আশ্বাস দেন। তার কথা বিশ্বাস করে হিরো আলম তার অ্যাকাউন্টের ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড নির্দ্বিধায় দিয়ে দেন তাকে। পরক্ষণেই অ্যাকাউন্টের সেই হ্যাকার অ্যাকাউন্টের সকল তথ্য পরিবর্তন করে ফেলে।

আরো পড়ুন: জেনে নিন হিরো আলমের উপার্জন কত?

তিনি আরো জানান, রাজা মিয়ার সাথে তার বিভিন্ন সময়ে ভিন্ন ভিন্ন নাম্বারে যোগাযোগ হতো। তার অধিকাংশই আইপি নাম্বার।

রাজা মিয়ার দেওয়া অ্যাকাউন্টে এখনও পর্যন্ত পাঁচ হাজার টাকা দিয়েছিলেন কিন্তু অ্যাকাউন্ট নাম্বার ভুল হওয়ায় সেই টাকা অন্য কোন অ্যাকাউন্টে চলে যায় বলেও জানান তিনি।

সর্বশেষ হ্যাকারের বিরুদ্ধে তথ্য প্রযুক্তি আইনে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানান হিরো আলম।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এছাড়াও পরীক্ষা করুন
Close
Back to top button