লালমনিরহাট

প্রতিবন্ধী শিশুদের মাঝে ‘আমরাই কিংবদন্তী ফাউন্ডেশন’ এর শীতবস্ত্র বিতরণ

লালমনিরহাটের একটি প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের অসহায় প্রতিবন্ধী শিশুদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করেছে ঢাকার একটি সামাজিক সংগঠন ‘আমরাই কিংবদন্তী ফাউন্ডেশন’।

শুক্রবার (৩১ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার কালীগঞ্জ প্রতিবন্ধী বিদ্যালয় মাঠে শীতবস্ত্রের পাশাপাশি খাবারও বিতরন করা হয়।

মানব কল্যাণে কাজ করার প্রত্যয়ে এগিয়ে চলেছে “আমরাই কিংবদন্তী ফাউন্ডেশন”। এস এস সি ২০০০ ও এইচ এস সি ২০০২ সালের প্রাক্তন ছাত্র ছাত্রীদের দ্বারা এই সংগঠনটি পরিচালিত। এটি একটি অলাভজনক প্রতিষ্ঠান, যা মানব কল্যাণে গ্রুপের পিছিয়ে পড়া সদস্য ছাড়াও সমাজের অবহেলিত মানুষগুলোর জন্য কাজ করাই এই ফাউন্ডেশনের অন্যতম লক্ষ্যগুলোর একটি। ধারাবাহিক সামাজিক কাজের অংশ হিসাবে কালীগঞ্জ উপজেলার “কালীগঞ্জ প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়” প্রাঙ্গনে বিদ্যালয়ের প্রতিবন্ধী ও শারীরিক প্রতিবন্ধকতার শিকার প্রায় দুই শতাধিক শিশুদের মাঝে শীতবস্ত্র, নতুন পোশাক বিতরণ ছাড়াও ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে “ক্ষুদ্র প্রয়াসে পাশে আছি” স্লোগানে খাবার বিতরণ করা হয়। 

সংগঠনটির ঢাকা, রংপুর, দিনাজপুর, নীলফামারী ও লালমনিরহাটের ১৫ জন সদস্য উপস্থিত থেকে এই শীতবস্ত্র বিতরন করেন। এছাড়াও হাতীবান্ধা ও কালীগঞ্জ এর স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ অংশগ্রহন করেন। 

এর আগে লালমনিরহাটের হাতিবান্ধার পূর্ব সির্ন্ধুনা’র “আব্দুল করিমের চাতাল” প্রাঙ্গনে পাঁচ শতাধিক অসহায় পরিবারের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করেন।

উল্লেখ্য যে “আমরাই কিংবদন্তী ফাউন্ডেশন” ২০১৯ সালের ৫ সেপ্টেম্বর যৌথ মূলধনী কোম্পানী ও ফার্মসমূহের পরিদপ্তর হতে নিবন্ধিত হয়। এর আগে ফেসবুক ভিত্তিক গ্রুপ “এস এস সি ২০০০ ও এইচ এস সি ২০০২ (আমরাই কিংবদন্তী)” ২০১৭ সালের ১৫ নভেম্বর থেকে যাত্রা শুরু করে, যার বর্তমানে সদস্য সংখ্যা প্রায় ৪৪০০০ হাজার। 

এই গ্রুপটি এর আগেও সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে বিভিন্ন সামাজিক কাজে নিজেদের নিয়োজিত রেখেছিল; তারমধ্যে অন্যতম হচ্ছে কোভিড-১৯ কালীন ফ্রি অক্সিজেন ব্যাংক কার্যক্রম, দেশ জুড়ে পরিচ্ছন্নতা ও  জনসচেতনতা, প্রতিবন্ধী শিশুদের সহায়তা কার্যক্রম, ফ্রি হেলথ ক্যাম্প, অসহায় মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র, নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস সরবরাহ ও ধারাবাহিক খাবার বিতরণ, বৃদ্ধাশ্রমে চিকিৎসা ও খাবার সরবরাহ, দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত সদস্যদের আর্থিক সহায়তা এবং রক্তদান কর্মসূচীসহ বিবিধ কার্যক্রম। নতুন বছরে মানবিক কার্যক্রম আরো বিস্তৃত করার বিষয়ে এসময় স্বেচ্ছাসেবীরা ঐকমত পোষণ করেন। ধারাবাহিক ভাবে গ্রুপের পিছিয়ে পড়া সদস্যসহ দেশের প্রতিটি অঞ্চলের অসহায় মানুষদের পাশে চিকিৎসা সেবা সহ সকল মৌলিক সেবা পৌঁছে দিতে পরিকল্পনা করছে এই গ্রুপের সদস্যরা । 

উল্লেখ্য বিদ্যালয়টি ২০১১ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। বিদ্যালয়টির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মোঃ আব্দুর রশীদ এক বিঘা সম্পত্তির মধ্যে ২০ শতাংশ জমি বিদ্যালয়ের নামে লিখে দিয়ে সমাজের অবহেলিত জনগোষ্ঠীকে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিতে কালীগঞ্জ প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত করেন আব্দুর রশীদ। সে থেকেই এ বিদ্যালয়টি প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিচ্ছে। 


Discover more from MIssion 90 News

Subscribe to get the latest posts to your email.

সম্পর্কিত সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker