ইতিহাস ও ঐতিহ্যকিশোরগঞ্জভিডিও

পিকনিকের সেরা স্পটগুলি কিশোরগঞ্জ

বাংলাদেশের ৬৪ জেলার মধ্যে অন্যতম হাওর বেষ্টিত জেলা, অসংখ্য মহা মানবদের জেলা কিশোরগঞ্জ। কিশোরগঞ্জ জেলায় রয়েছে ১৩টি থানা, যার মধ্যে বাজিতপুর, নিকলী, ইটনা, মিঠামইন ও অষ্টগ্রাম দৃষ্টি নন্দন হাওরে ঘেরা প্রকৃতির রাণী সেজে আকৃষ্ট করে বাংলাদেশের প্রত্যেক জেলা থেকে ভ্রমন পিপাসু মানুষ জনকে।

বিশিষ্ট ব্যাক্তি বর্গের মতে যার মন সুন্দর তার চরিত্র সুন্দর আর চরিত্র সুন্দর হলে পুরো পৃথিবীর সৌন্দর্য্যটা থাকে হাতের নাগালে, মনের সৌন্দর্য্য বা শ্রী বৃদ্ধি করার জন্য প্রকৃতি প্রেম একটা অনন্য ভূমিকা পালন করে।

প্রেমময়ী বর্ষার এ মৌসুম  হাওরের প্রকৃতি সাজে মনমোহিনী রুপে, আকৃষ্ট করে হাজারো শিল্পি, কবি, বাউল, সংস্কৃতি মন। মিশন ৯০ এর যাত্রা শুরু হয় দৃষ্টির সীমানা পেরিয়ে সুমিষ্টি প্রকৃতি অবলোকন করতে।

আমরা কিশোরগঞ্জ জেলার বাজিতপুর উপজেলার দিলাল পুর ঘাট থেকে ট্রলারে যাত্রা শুরু করি চলে যাই বাজিতপুরের পাটুলী ঘাটে, যেখানে দেখা পাই অসংখ্য পর্যটকদের, থৈ থৈ জলরাশির মৃদু উত্তাল তরঙ্গে ভাসতে ভাসতে ইত্যাদিক্ষেত বাহেরবালী স্কুল হয়ে চলে যাই, অষ্টগ্রাম উপজেলার মনকাড়াঁ সৌন্দর্যের সমাহার অষ্টগ্রাম জিরো পয়েন্টে সেখান থেকে অটোরিকশা নিয়ে অলওয়েদার সড়ক পথে মিঠামইন পথিমধ্যে চোখে পড়ে আঁকাবাকা সৌন্দর্য্যের ভয়াল সরকের ক্ষানিকটা দুরে দুরে অসম্ভব মনোরম ব্রীজ। প্রতিটি ব্রীজে বিপুলসংখ্যক পর্যটক, রাস্তার দুপাশে ছোট ছোট বাড়ী চতুষ্পার্শ্বস্থ জলরাশির মেলা। এ যেন এক কল্পনা রাজ্যে আমরা।

মিশন ৯০ এর দীর্ঘ যাত্রায় অবস্থান বিরতী গ্রহণ করি পথে থাকা ভাত শালা ব্রীজে, আবার যাত্রা মিঠাইন মহামান্য রাষ্ট্রপতির বাড়ী দেখা মিলে হাজার পর্যটকের, কামালপুর নামক গ্রামে মহামান্যের বাড়ী। বাড়ীটির সামনেই সুন্দর একটি মসজিদ আমরা জুম্মা বিরতির পর মিঠামইনের হোসেনপুর উপস্থিত প্রেসিডেন্ট রিসোর্টে গেলাম এ যেন হাওরের বুকে দাড়িয়ে থাকা সুন্দরের বারামখানা। তারপর নিকলী হাওরের শোভামণ্ডিত স্থান ছাতির চর ভ্রমণের মাধ্যমে আমাদের ভ্রমণ সমাপ্তি করি।

মিশন ৯০ এর ভ্রমন সঙ্গী হিসেবে ছিলেন- মনিরুজ্জামান (পিডিবিএফ), রফিকুল ইসলাম (পল্লি সঞ্চয় ব্যাংক), তোফাজ্জল হোসেন (ব্র্যাক), রফিকুল ইসলাম (পিডিবিএফ), এরশাদুল হক (পিডিবিএফ), মাহফুজুর রহমান (এসএফডিএফ), মাহমুদুর রহমান (পিডিবিএফ), হেলাল উদ্দীন (এপোলো ফার্মা), খায়রুল ইসলাম (পিডিবিএফ), মোসারফ হোসাইন (ট্রিম ফার্মা), মিলন আহমেদ (এসএফডিএফ), হেলাল উদ্দীন (পিডিবিএফ), আব্দুল বাতেন(ব্যবসায়ী), আশরাফুল ইসলাম(পিডিবিএফ), ফারজানা এয়াসমিন, আসমা খানম, নাভা, নোভা এবং জেরিন আক্তার প্রমুখ।

জানা যায়- প্রতিটি ছুটির দিনে অসংখ্য মানুষের মিলনমেলা এই হাওরগুলি। সাতার না জানা পর্যটকদের প্রতি রয়েছে বিশেষ অনুরোধ জলের বুকে জড়াজড়ি না করার।

প্রতিটি ভ্রমণ স্পটের আলাদা আলাদা প্রতিবেদন দেখতে পাবেন শুধু মাত্র  মিশন ৯০ ইউটিউব চ্যানেলে।

Author


Discover more from MIssion 90 News

Subscribe to get the latest posts to your email.

সম্পর্কিত সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker